বিশেষ প্রতিবেদন

সিলভার গোল্ড এক্সপ্রেস মালিকানা বাংলাদেশীর

কেরামত উল্লাহ বিপ্লবকেরামত উল্লাহ বিপ্লব: টরন্টো শহরে এখন উদ্বোধনের অপেক্ষায় সিলভার গোল্ড এক্সপ্রেস । বুলিয়ন শপ । যার মালিকানা বাংলাদেশী ব্যবসায়ীর। বিশ্বব্যাপী এখন যে নতুন ধারার অর্থনৈতিক কর্মকান্ড তাই হচ্ছে-বুলিয়ন বিজনেস। যার অর্থ নগদ টাকার বদলে মুল্যবান ধাতু যেমন স্বর্ন, রৌপ্য কিংবা প্লাটিনামের কারবার । যা দিয়ে মুদ্রার বিপরীতে রিজার্ভ শক্তিশালী রাখে ব্যাংক কিংবা আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোও । হ্যাঁ সেই বুলিয়ন শপ গড়েছেন, কানাডা প্রবাসী বাংলাদেশী ব্যবসায়ী মনিরুজ্জামান রাজু ও তার সহধর্মীনি শাহনিমা জামান ডোরা ।

নর্থ ইয়র্কের ম্যালার্ড রোডে । বছরখানেক ধরে তৈরি হচ্ছে, চমকপ্রদ এই বুলিয়ন শপ । যেখানে পাওয়া যাবে সিলভার, গোল্ড, প্লাটিনামের নানা ধরনের মুদ্রা-বার ও সুভ্যেনির । নিজস্ব কারখানায় এখানে সোনা-রুপা পরিশোধনও করা যাবে । কেনার পাশাপাশি সিলভার গোল্ড এক্সপ্রেসে এসব বিক্রিও করতে পারবেন গ্রাহকরা । প্রথম ধাপে নর্থ ইর্য়র্কে হলেও টরন্টো, মন্ট্রিয়াল, ভ্যানকুভার, অটোয়াসহ কানাডার বিভিন্ন শহরে সিলভার গোল্ড এক্সপ্রেস বুলিয়ন শপের শাখা খুলতে চান । এরপর বিশ্বের বড় বড় শহরে এই বুলিয়ন শপ করতে চান মনিরুজ্জামান ।

কেন এমন ধারনার ব্যবসা-এ প্রশ্নের জবাবে কানাডা বাংলাদেশ চেম্বারের সাবেক প্রেসিডেন্ট মনিরুজ্জামান বললেন, বুলিয়ন মার্ট নামে কানাডায় তার যে ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান তারই ধারাবাহিক সম্প্রসারন এটি । কারন, সারা বিশ্বেই এখন নগদ মুদ্রা ডলার-টাকার বদলে মানুষ নিরাপদ ও নিশ্চিত সম্পদ মনে করছেন- মুল্যবান ধাতবকে । অনেকেই এখন টাকার বদলে ঘর কিংবা ভাড়ার লকারে মজুদ রাখছেন এই বুলিয়ন বার-কয়েন । তাই আগামী প্রজন্মের এই ব্যবসা শুরুর চিন্তা । শুভ কামনা সিলভার এন্ড গোল্ড এক্সপ্রেসের শুভ যাত্রায়

সংবাদ উৎস
দি প্রবাসী
ট্যাগ

এমন আরও সংবাদ

Close
Close