উলিপুর
Trending

উলিপুরে তুচ্ছ ঘটনায় এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে হত্যা

hur agencyজে এম আলী নয়ন: কুড়িগ্রামের উলিপুরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে। এ সময় তাকে বাঁচাতে স্ত্রী ও সন্তান এগিয়ে আসলে তাদেরকেও এলোপাতাড়ি মারপিট করে গুরুতর আহত করা হয়। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী বাদী হয়ে উলিপুর থানায় মামলা দায়ের করলে পুলিশ তিনজনকে আটক করে। ঘটনাটি ঘটেছে, উপজেলার ধামশ্রেনী ইউনিয়নের যাদুপোদ্দার গ্রামে। নিহতের স্বজন ও এজাহার সূত্রে জানা গেছে, গত শনিবার বিকেলে ওই গ্রামের আনছার আলীর পুত্র মুকুল মিয়ার (৪২) সাথে প্রতিবেশী সাহাব উদ্দিনের পুত্র মিশন মিয়ার (২৮) ক্রিকেট খেলার বল শরীরে লাগার ঘটনাকে কেন্দ্র করে বাকবিতণ্ডা হয়।
এরপর থেকে সাহাব উদ্দিনের পক্ষের লোকজন মুকুল মিয়াকে বিভিন্ন ভাবে হুমকি-ধমকি দিয়ে আসছিলেন। এরই জের ধরে গতকাল রবিবার বিকেলে উলিপুর বাজার থেকে মুকুল মিয়া বাড়ি ফেরার পথে সাহাব উদ্দিনের বাড়ির সামনে পৌঁছিলে তার পক্ষের লোকজন দলবদ্ধ হয়ে মুকুল মিয়ার ওপর হামলা চালায়। খবর পেয়ে মুকুল মিয়ার স্ত্রী ও পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধারের জন্য এগিয়ে আসলে তাদেরকেও এলোপাতাড়ি মারপিট করে গুরুতর আহত করা হয়। পরে স্থানীয় লোকজন আহতদের মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। ওই দিন রাত ২টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মুকুল মিয়া মারা যান।
তার মৃত্যুর খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে উত্তেজিত জনতা সাহাব উদ্দিনের বাড়ি-ঘর ভাঙচুর করে লুটপাট চালায়। বর্তমানে নিহতের স্ত্রী বিউটি বেগম (৩৫) ও পুত্র বিদ্যুৎ মিয়া (২০) গুরুতর আহত অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এ ঘটনায় আজ সোমবার দুপুরে নিহতের স্ত্রী বাদী হয়ে নামীয় ১৬ জন ও অজ্ঞাতনামা ১০-১১ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করলে ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ সাহাব উদ্দিনের স্ত্রী বকুল বেগমসহ তিনজনকে আটক করে।
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার ডা. মাঈদুল ইসলাম বলেন, গুরুতর আহত অবস্থায় মুকুল মিয়াকে সন্ধ্যায় হাসপাতালে ভর্তি করা হলে মাথায় আন্তরক্তক্ষরণের কারণে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাতেই তার মৃত্যু হয়।
উলিপুর থানার ওসি মোয়াজ্জেম হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, নিহত মুকুল মিয়ার মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কুড়িগ্রাম মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় তিনজনকে আটক করা হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

এমন আরও সংবাদ

Leave a Reply

Back to top button