চিলমারী

স্ত্রী কর্মকর্তা সরকারী গাড়ি স্বামীর দখলে তেল ও মেরামতের নামে ভুয়া বিল ভাউচার

আমার বাাড়ি আমার খামার

স্টাফ রিপোর্টারঃ
স্ত্রী কর্মকর্তা সরকারী গাড়ি স্বামীর দখলে ব্যবহার হচ্ছে নিজস্ব কাজে। সরকারী কাজে ফাকি দিয়ে তেল ও মেরামতের নামে ভুয়া বিল তৈরি করে সরকারী টাকা আত্মসাদের অভিযোগ। অভিযোগটি উঠেছে কুড়িগ্রামের চিলমারী উপজেলার আমার বাড়ি আমার খামার প্রকল্প এর উপজেলা সমন্বয় কারী ও শাখা ব্যবস্থাপক পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক (অতিঃ) মোঃ আমিনা খাতুনের বিরুদ্ধে।
জানা গেছে, আমার বাাড়ি আমার খামার প্রকল্প ও পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক এর শাখা ব্যবস্থাপক (অতিঃ) আমিনা খাতুন চিলমারীতে যোগদানের পর থেকেই অজ্ঞাত শক্তির কারনে অনিয়মের রাজ্য তৈরি করেছেন অফিসটি। বিভিন্ন ক্ষাতের ভুয়া বিল  ভাউচার তৈরি করে সরকারী টাকা আত্মসাৎসহ মাঠ কর্মীদের কথায় কথায় চাকুরীর হুমকি সোকচসহ সুবিধাভুগিদের হয়রানী করছেন। শুধু তাই নয় সরকারী ভাবে অফিসে মটর সাইকেল বরাদ্দ থাকলেও তা দিয়েছেন স্বামীর হাতে। উক্ত মটর সাইকেলটি (কুড়িগ্রাম-হ ১১-৮১৫৯) তার স্বামী সহকারী শিক্ষক মোঃ নাজমুল  হোসাইন নিজস্ব কাজে ব্যবহার করলেও আমার বাড়ি আমার থামার প্রকল্পের দায়িত্বরত কর্মকর্তা আমিনা বেগম সরকারী নিয়ম নীতিকে তোয়াক্কা না করেই ভুয়া বিল ভাউচার তৈরি করে বরাদ্দকৃত তেলের টাকা ও মেরামতের নামে হাজার হাজার টাকা আত্মসাৎ করাসহ অনিয়মের রাজ্যত্বে পরিনত করলেও অজ্ঞাত কারনে নজর দিচ্ছেন না কর্তৃপক্ষ। অফিসের গাড়িটি ( মটর সাইকেল) অফিসের কাজে ব্যবহার হয় না এবং সমন্বয়কারীর স্বামী তা ব্যবহার করেন তা স্বীকার করে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মাঠকর্মী জানান ভাই আমরা বলে কি করবো কোন কথাই বলা যায়না কিছু বললেন সাথে সাথে ধরে দেন সোকচের টিঠি সাথে হুমকি তো আছে। একটি সুত্র জানান, সমন্বয়কারী আমিনা খাতুনের স্বামী উলিপুর উপজেলার সাতা লস্কর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হিসাবে কর্মরত থাকায় তিনি উক্ত স্কুলে যাতায়াতসহ নিজের কাজে ব্যবহার করে আসছেন দীর্ঘদিন থেকে সরকারী গাড়িটি। সরেজমিনে গিয়ে এর সত্যত্বা পাওয়া যায় আমিনা বেগমের স্বামী নাজমুল হোসাইন আমার বাাড়ি আমার খামার প্রকল্পের গাড়িটি নিয়ে স্কুলে যাতায়াত করেন। এব্যাপারে উপজেলা সমন্বয়কারী ও শাখা ব্যবস্থাপক পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক (অতিঃ) আমিনা খাতুনের সাথে (০১৯৩৮৮৭৯০৭৩) নাম্বারে একাধিক বার যোগাযোগ করলেও তিনি নাম্বার রিসিব করেননি পরে নাম্বারটি বন্ধ করে রাখেন। বিষয়টি নিয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও প্রকল্পের সভাপতি এ ডব্লিউ এম রায়হান শাহ্ এর সাথে কথা হলে তিনি বলেন বিষয়টি আমার জানা নাই তদন্ত পুর্বক ব্যবস্থা নেয়া হবে। এব্যাপারে যুগ্ন-সচিব উপ প্রকল্প পরিচালক (প্রশাসন ও সমন্বয়) আমার বাড়ি আমার খামার প্রকল্প মোঃ নজির আহমেদ এর সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি বলেন প্রকল্পের গাড়ি প্রকল্পের কাজে অফিসের দায়িত্বরতরা ব্যবহার করবে কোন ভাবে তার স্বামী তা ব্যবহার করতে পারেনা বিষয়টি আমরা ক্ষতিয়ে দেখে ব্যবস্থা গ্রহন করবো।

এমন আরও সংবাদ

Back to top button
Close
Close