ফেসবুক স্ট্যাটাস থেকেভ্রমণ

চোর বাজার, চাঁদনী চক ও সস্তার মোবাইল বৃত্তান্ত

কলকাতার পথে পথে

Shakil Hossainশাকিল হোসাইন: এক বন্ধু দেশে থাকতে কথা আদায় করে নিয়েছিলো, যেভাবে হোক যেন তার জন্য সস্তায় একটা মোবাইল কলকাতা থেকে কিনে আনি। সে নাকি ইউটিউবে দেখেছে, কলকাতায় লাখ টাকার আইফোন এক্স ৮/১০ হাজার রুপিতে পাওয়া যায়।

তো ২য় দিন সকাল ১০ টায় চড়চড়ে রোদে রওয়ানা দিলাম বিখ্যাত চাঁদনিচকের চোর বাজারে। ফায়ার ব্রিগেড হেডকোয়ার্টার পেছনে ফেলে বামে হগ সাহেবের মার্কেট আর ডানে তালতলা রেখে উঠলাম লেনিন সরণিতে। ট্রামলাইন আর খিলান দেয়া পুরনো বাড়ী দুপাশে, বুদ্ধদেবের বইয়ের পাতা যেন জীবন্ত এখানে।

চাঁদনীচক ঘুরে মনে হলো, ঢাকার নবাবপুরের ইলেকট্রিক মার্কেট আর গুলিস্তান স্টেডিয়ামের মোবাইল মার্কেট। অার সস্তার মোবাইল ফোনের কোনো গন্ধ নাই ওখানো চাইনিজ রেপ্লিকা ভার্সন ছাড়া।

পাশেই ই-মল শপিং সেন্টার। সেখানে ঢুকলাম ১০.৪০ এ। কোনো দোকান খোলে না বেলা ১১.০০ বা ১১.৩০ এর আগে। যা হোক, ওখানের MI Store থেকে একটা ইন্টারন্যাশনাল ওয়ারেন্টি সমেত শাওমি ফোন কিনলো ছোটভাই আলী। যা বুঝলাম, কলকাতায় ১০% হতে ১৫% কম মোবাইলের দাম বাংলাদেশ থেকে।

আরামের এসি মার্কেট থেকে রাস্তায় নেমেই নিম্বু পুঁদিনা পানি খেলাম ২০ রুপি করে। এবার যাবো কলেজ স্ট্রিটে। গন্তব্য বাতলে দিলো নিম্বুপানিওয়ালাই।

সামনেই মেট্রো স্টেশন, ওপারে বাসও আছে। মাটির নীচে দ্রুত যাওয়া যায়, কিন্তু শহরের কিছুই দেখা যায় না। আমরা লোকাল বাসটাই বেছে নিলাম।

এরপর কলেজ স্ট্রিটের পথে, মিশন “সেলেসটিয়াল বডিস” নামে একটি বই..

মাধ্যম
হুগলীর তীরে, হাওড়া ব্রীজেকলকাতার নাখোদা মসজিদ ও এক দেশীভাইজাকারিয়া স্ট্রিটে সুফিয়ার পায়া নেহারি কাহিনী
ট্যাগ

এমন আরও সংবাদ

Back to top button
Close
Close