রাজিবপুর

অনন্য এক নারী মুক্তিযোদ্ধা বীরপ্রতীক তারামন বিবির ইন্তেকাল

শফিকুল ইসলাম, রাজিবপুর, কুড়িগ্রাম তারিখঃ ০১/১২/২০১৮

মুক্তিযুদ্ধের গৌরব নারী সমাজের অহংকার। রাজিবপুর উপজেলার কৃতি সন্তার বীরপ্রতীক তরামন বিবি। ১৯৫৭ সালের জানুয়ারী মাসে বর্তমান রাজিবপুর উপজেলার শংকরমাধবপুর গ্রামে এই মহিয়সী নারীর জন্ম। মুক্তিযুদ্ধোর সময় তারামন বিবি তার নিজ গ্রাম ছেড়ে চলে আসেন পার্শ্ববর্তী পশ্চিম রাজিবপুর গ্রামে। সেখানে একদিন হাবিলদার মহিব আজিজ এর সাথে দেখা হয় তারামন বিবির। হাবিল মুহিব আজিজ তাকে মুক্তি বাহিনীর ক্যাম্পে রান্না করার জন্য নিয়ে যান এবং তাকে ধর্ম মেয়ে হিসেবে স্বীকৃতি দেন। এভাবেই শুরু হয় তারামন বিবির মুক্তিযুদ্ধে সক্রিয় অংশগ্রহন। ১৯৯৫ সালের শেষের দিকে তাকে বীরপ্রতীক উপাধী ঘোষনা করা হয়।

শ্রক্রবা দিবাগত রাত ১.৩০ ঘটিকার সময় (শনিবার) ইন্তেকার করেন। (ইন্ননিল্লাহি….রাজেউন) শনিবার বাদ জোহর তাঁর বাসভবন কাচারী পাড়া, রাজিবপুর, কুড়িগ্রামে নামাজের জানাজা অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছন তাঁর পরিবার। দীর্ঘদিন ধরে নানা রোগে ভূগছিলেন ৬১টি বছর বয়সী এই বীরপ্রতীক। মৃত্যুকালে স্বামী, ১পুত্রকন্যাসহ বহু আত্নীয় স্বজন রেখে গেছেন। তার মৃত্যুতে এলাকবাসী শেকার্ত। বীবপ্রতীক তারামন বিবির মৃত্যুতে জেলা প্রশাসক জনাব সুলতানা পারভীন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জনাব মেহেদী হাসান, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার জনাব আব্দুল হাই সরকার সহ সকল মুন্তিযোদ্ধাগন, উপজেলা চেয়ারম্যান জনাব শফিউল আলম, রাজিবপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জনাব কামরুল আলম বাদল সহ সকল স্থারের নেতাকর্মী শোকার্ত। সবাই তাঁর জন্য সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন।

এমন আরও সংবাদ

Close
Close